[gtranslate]

হাটহাজারীতে বিএআরআই কর্তৃক বেগুনের ঢলে পড়া রোগ নিয়ন্ত্রনের প্রযুক্তি উদ্ভাবন প্রকল্পের কৃষক প্রশিক্ষণ ও উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠিত।

প্রকাশিতঃ ৯:০৯ অপরাহ্ণ | আগস্ট ১৭, ২০২০

কৃষিবিদ দীন মোহাম্মদ দীনু।।

নিরাপদ-বিষমুক্ত কৃষি-বান্ধব উপায়ে বেগুনের ঢলে পড়া রোগ নিয়ন্ত্রণ  করে মান-সম্পন্ন বেগুন  উৎপাদনের টেকসই প্রযুক্তি উদ্ভাবন করা আজ বিজ্ঞানীদের বড় চ্যালেঞ্জ, বলেছেন বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল ( বিএআরসি) এর নির্বাহী চেয়ারম্যান  ড. শেখ মোহাম্মদ বখতিয়ার । তিনি সোমবার ১৭ আগস্ট ২০২০ চট্টগ্রাম এর হাটহাজারী উপজেলা আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা  কেন্দ্র, বিএআরআই এর আয়োজনে উদ্যানতত্ত্ব সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত ‘কৃষিতে উপকারী নভেল বেসিলাস ব্যাক্টেরিয়া দ্বারা উৎপাদিত জৈব পণ্য ব্যবহার করে বেগুনের ঢলে পড়া রোগ নিয়ন্ত্রণের প্রযুক্তি উদ্ভাবন ও বিস্তার কর্মসূচি এর আওতাধীন কৃষক প্রশিক্ষণ ও উপকরণ বিতরণ ’ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন দেশের স্বার্থে বিজ্ঞানীদের আরো নিরলসভাবে কাজ করতে হবে যা শস্য বিন্যাসে ইতিবাচকভাবে কাজে আসবে।   বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট এর মহা পরিচালক ড. মো. নাজিরুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন  বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল এর  নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. শেখ  মোহাম্মদ বখতিয়ার, এ সময় উপস্থিত ছিলেন ।   চট্টগ্রাম ভেটেরিনারী এ্যান্ড এ্যানিমেল সাইন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের এর ভিসি প্রফেসর ড. গৌতম বৌদ্দ দাস, বিএআরআই এর সিএসও ড. মো. খলিলুর  রহমান ভূঁইয়া, সিএসও ফেরদৌসী ইসলাম, র্কমসূচি পরিচালক ও এসএসও ড. মুহাম্মদ তোফাজ্জল হোসেন রনি , কৃষক মো.সেলিম,, রুবেল প্রমুখ। পরে তিনি কৃষকদের  মধ্যে  বিভিন্ন উপকরণ বিনামূল্যে বিতরণ করেন। । দিন ব্যাপী এই কৃষক প্রশিক্ষণে ত্রিশ জন কৃষকসহ বিভিন্ন ব্যক্তিগণ  উপস্থিত ছিলেন।  পরে বি এ আর আই এর মহা পরিচালক ড. মো. নাজিরুল ইসলাম আধুনিক উদ্ভিদ  রোগতত্ত্ব গবেষণাগার এর শুভ উদ্বোধন করে ল্যাব পরিদর্শণ করেন। উল্লখ্যে, অত্র র্কমসূচীর মাধ্যমে চট্টগ্রামরে আটটি অঞ্চলে সফলভাবে প্রর্দশণী সম্পন্ন হয়ছে।

প্রকল্পের পিআই ও এসএসও ড. মুহাম্মদ তোফাজ্জল হোসনে রনি বলেন, উপকারী জীবানু দ্বারা উৎপাদিত জৈব সার কৃষকের মাঠে ছড়ানোর জন্য বাংলাদেশে বায়োসেন্টার অত্যন্ত প্রয়োজন।  উপকারী নভেল বেসিলাস ব্যাকটেরিয়া দ্বারা বেগুনের ঢলে পড়া রোগ নিয়ন্ত্রন সম্ভব। ইতোমধ্যে এই জৈব উদ্ভাবনে দেশে প্রাথমিক সাফল্য পাওয়া গেছে। এই জৈব বাণিজ্যিকভাবে ভাবে বাজারজাত করা সম্ভব হলে সরকার বিপুল রাজস্ব আয় করতে পারবে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।